ফেসবুকে এইচএসসির ‘ভুয়া প্রশ্নপত্র’, গ্রেপ্তার ২

11

এইচএসসি পরীক্ষায় সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে ভুয়া প্রশ্নপত্র ছড়িয়ে প্রতারক চক্রের দুইজনকে গ্রেপ্তার করেছে নারায়ণগঞ্জের রাব-১১।

রাব-১১ এর সিনিয়র সহকারী পরিচালক সিনিয়র এএসপি শেখ বিল্লাল হোসেন স্বাক্ষরিত এক বিজ্ঞপ্তিতে মঙ্গলবার বিকালে জানান, র‌্যাব প্রতিষ্ঠালগ্ন থেকে সমাজের বিভিন্ন অপরাধের উৎস উদঘাটন, অপরাধীদের গ্রেপ্তারসহ আইন শৃঙ্খলার সামগ্রিক উন্নয়নে নিরলসভাবে কাজ করে যাচ্ছে। বিশেষ করে বিভিন্ন পাবলিক পরীক্ষায় প্রশ্ন ফাঁসকারী চক্র ও ভুয়া প্রশ্ন ছড়িয়ে প্রতারণার চেষ্টাকারীদের গ্রেপ্তার করে আইনের আওতায় আনার জন্য র‌্যাব নিয়মিত অভিযান পরিচালনা করে আসছে।

বিজ্ঞপ্তিতে আরও জানানো হয়, এরই ধারাবাহিকতায় মঙ্গলবার সকাল সোয়া ৯টায় র‌্যাব-১১ এর একটি দল গোপন সংবাদে নারায়ণগঞ্জের সদর থানায় এইচএসসি পরীক্ষা কেন্দ্র নারায়ণগঞ্জ কলেজের সামনে থেকে সঞ্জয় চন্দ্র মল্লিক ও হৃদয় দাসকে গ্রেপ্তার করা হয়।

গ্রেপ্তার সঞ্জয় চন্দ্র মল্লিক নারায়ণগঞ্জ জেলার রূপগঞ্জের মাটিয়াহারি এলাকার সঞ্জীবন চন্দ্র মল্লিকের ছেলে।

পরে সাড়ে ৯টায় এইচএসসি পরীক্ষা কেন্দ্র মরগান স্কুলের সামনে থেকে গ্রেপ্তার হৃদয় মুন্সীগঞ্জ জেলার লৌহজং থানার কলমা এলাকার দুলাল চন্দ্র দাসের ছেলে।

র‌্যাব জানায়, ওই সময় তাদের কাছ থেকে দুইটি স্মাটফোন উদ্ধার করা হয়।  উদ্ধার মোবাইলে এইচএসসি পরীক্ষা ২০১৮ এর বাংলা ২য় পত্রের প্রশ্নের একটি নমুনা পাওয়া যায়।  পরীক্ষা শুরু হওয়ার পর তাদের কাছে প্রাপ্ত কথিত ফাঁস হওয়া প্রশ্নের নমুনার সাথে পরীক্ষার মূল প্রশ্নপত্রের সাথে মিল খুঁজে পাওয়া যায়নি।

গ্রেপ্তাররা প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে জানায়, সামাজিক যোগাযোগমাধ্যম ফেসবুক এবং ইমো ব্যবহার করে অসাধু প্রতারক চক্র হতে ভুয়া প্রশ্নপত্র সংগ্রহ করে এইচএসসি পরীক্ষায় অংশগ্রহণকারী ছাত্রছাত্রীদের নিকট গোপনে বিতরণ করছিল। এই চক্রের সাথে জড়িত অন্য সদস্যদের গ্রেপ্তার করে আইনের আওতায় আনার চেষ্টা চলছে।