যশোর-মাগুরা সড়কে বাস উল্টে মুয়াজ্জিন নিহত আহত ২০

15

বিশেষ প্রতিনিধি,যশোর: যশোর- মাগুরা সড়কে বাস উল্টে পড়ে মুয়াজ্জিন মাকসুদুর রহমান (৫০) নামে এক যাত্রী নিহত হয়েছেন। এসময় আহত হয়েছে ২০জন বাসযাত্রী। নিহত মাকসুদুর রহমান যশোর নূতন উপশহর এ ব্লক মসজিদের মুয়াজ্জিন এবং মাগুরা জেলা সদরের মহিষাডাঙ্গা গ্রামের মৃত মান্নান মোল্যার ছেলে। সোমবার সকাল ৯টার দিকে যশোর-মাগুরা সড়কে বাঘারপাড়া উপজেলার কেষ্টপুর গ্রামে দুর্ঘটনাটি ঘটে। আহতরা হলেন, যশোর সদর উপজেলার ভবানিপুর গ্রামের মো. মহব্বতের স্ত্রী রাবেয়া খাতুন (৩০), বলপুর গ্রামের বাবুর স্ত্রী আরজিনা খাতুন (২৮), হাশিমপুর গ্রামের রফিকুল ইসলাম (৪০), তার ছেলে আবু সুফিয়ান (৮), ছেলে সালমান (৬), স্ত্রী রেক্সোনা বেগম (৩০), নূতন উপশহর এলাকার বিশ্বজিতের স্ত্রী মুক্তা (৩০), ঝিকরগাছা উপজেলার কৃষ্ণবাটি গ্রামের জলিলের ছেলে জালাল (৪০), একই এলাকার মতিয়ার রহমান, বাঘারপাড়া উপজেলার পাথরঘাটা গ্রামের আব্দুল আজিজের স্ত্রী লিমা খাতুন (২৮), যশোর শহরের ষষ্ঠিতলাপাড়ার নিউটনের স্ত্রী প্রিয়াংকা (২৫), তার ছেলে উৎসব (৪), লিমা খাতুন (৩), শরিফুল ইসলাম, মুক্তা (৪), আরমিনা (৩০), সীমা (২০), তাসলিমা খাতুন (২৫), কুলসুম (১২), শাফায়েত হোসেন (১২), লুৎফর রহমান (২২) এবং মতিয়ার রহমান (২৮)।
যশোর ফায়ার সার্ভিসের সিনিয়র স্টেশন কর্মকর্তা নজরুল ইসলাম ও খাজুরা পুলিশ ক্যাম্পের ইনচার্জ এসআই মাসুদুর রহমান জানান, যশোর থেকে ছেড়ে যাওয়া মাগুরাগামী একটি যাত্রীবাস (চট্ট মেট্রো-চ-১৭৪৪) বাঘারপাড়া উপজেলার কেষ্টপুরে নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে খাদে পড়ে যায়। খবর পেয়ে তারা হতাহতদের উদ্ধার করে যশোর জেনারেল হাসপাতালে আনেন।
হাসপাতালের জরুরি বিভাগের ডাক্তার মো. হাবিবুর রহমান ভূঁইয়া বলেন, ‘সড়ক দুর্ঘটনায় মাকসুদুর রহমান নামে একজন মারা গেছেন। হাসপাতালে আনার আগেই তিনি মারা যান। আহতদের মধ্যে ২০ জনকে হাসপাতালে আনা হয়েছে। এদের মধ্যে রাবেয়া খাতুন নামে একজনের অবস্থা খারাপ। অন্যরা আশংকামুক্ত।